মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
পাতা

উপজেলা প্রশাসনের পটভূমি

 

অতীতকে জানার আগ্রহ মানুষের সহজাত । মানুষ তার অতীতকে জেনে এগুতে চায়। অতীত ঐতিহ্য মানুষের গর্বের বিষয় । যুগে যুগে মানুষ অতীতের সভ্যতা ও কৃষ্টি জানার আগ্রহ দেখিয়েছে । ইতিহাস যত ক্ষুদ্র হোকনা কেন সে ইতিহাস মানুষের গর্বের । এ ক্ষেতে রংপুরের পীরগাছা উপজেলার নামকরনের সঠিক কোন তথ্য পাওয়া না গেলেও জনশ্রুতিতে আছে, অতীতে এখানে ইসলাম প্রচারে পীরদের আগমন ঘটেছিল । ইসলাম প্রচারে আসা পীর, ওলি, গাউস যাঁদের স্মৃতি নামকরনের মধ্যে লুকিয়ে আছে । জনশ্রুতি কিংবা কিংবদন্তি ইতিহাসের উপকরণ নয়, তবে বেশীর ভাগ ক্ষেত্রেই কোন না কোন স্থানের নাম বা তার উৎস খোঁজার জন্য কোন না কোন ভাবে জনশ্রুতির উপর নির্ভর করতে হয়। পীর, ওলি, গাউসরা এখানে দীর্ঘদিন আস্তানা গড়ে ধর্ম প্রচার করেছিলেন। এদের ব্যবহারের জন্য ছিল একটি কুপি বা প্রদীপ রাখার বিশাল গছা (বাঁশ জাতীয়) । সে বাতির আলো দুর থেকে দেখা যেত । অবশেষে পীররা চলে যাওয়ার সময় বাঁশের গছাটি পরিত্যক্ত রেখে যান । জনশ্রুতিতে আছে তখন থেকেই ভক্ত মুরিদরা ওই গছা টিকে ভক্তি শ্রদ্ধা করে আসত । এ কারণে পীর ও তার গছা থেকে বিবর্তনের ধারায় পীরগাছা নামের উৎপত্তি হয়েছে ।

পীর, ওলি, গাউসরা এখানে দীর্ঘদিন আস্তানা গড়ে ধর্ম প্রচার করেছিলেন। এদের ব্যবহারের জন্য ছিল একটি কুপি বা প্রদীপ রাখার বিশাল গছা (বাঁশ জাতিয়) । সে বাতির আলো দুর থেকে দেখা যেত । অবশেষে পীররা চলে যাওয়ার সময় বাঁশের গছাটি পরিত্যক্ত রেখে যান । জনশ্রুতিতে আছে তখন থেকেই ভক্ত মুরিদরা ওই গছা টিকে ভক্তি শ্রদ্ধা করে আসত । এ কারণে পীর ও তার গছা থেকে বিবর্তনের ধারায় পীরগাছা নামের উৎপত্তি হয়েছে ।

পীরগাছা থানার সৃষ্টি ১৭৮৩ সালে এবং থানাকে উপজেলায় রুপান্তর করা হয় ১৯৮৩ সালে।

রংপুর শহর থেকে পীরগাছা উপজেলা ২১ কিঃ মিঃ পূর্ব দক্ষিণে অবস্থিত পীরগাছা উপজেলার ভৌগলিক অবস্থান ২৫-৩৩র্ হতে ২৫-৪৪র্ উত্তর অক্ষাংশ এবং ৮৯-১৮র্ হতে ৮৯-৩২র্ পূর্ব দ্রাঘিমাংশ অবস্থিত । আয়তন- ২৬৫.৩২ বঃকিঃমিটার। উপজেলার উত্তরে কাউনিয়া ও কুড়িগ্রাম জেলার রাজারহাট উপজেলা । দক্ষিণে গাইবান্ধা জেলার সুন্দরগঞ্জ উপজেলা। পশ্চিমে রংপুর সদর ও মিঠাপুকুর উপজেলা । পূর্বে উলিপুর ও সুন্দরগঞ্জ উপজেলা অবস্থিত।